আদা কেন সুপারফুড!

0
10

তারা নিউজ ডেস্ক:

বাঙালির রান্নার উপাদানগুলোর মধ্যে বিভিন্ন ধরনের মসলা রয়েছে। আদাও তেমনি একটি মসলা। তবে নানা গুণের কারণে একে সুপারফুডও বলা হয়।

আদা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ও অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি সমৃদ্ধ। রান্নায় আদা বিভিন্নভাবে ব্যবহার করা ছাড়াও আদার রস ও আদা চা পান করি আমরা। সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের মিশিগান মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা দেখেছেন, টানা ২৮ দিন মাত্র  দু’গ্রাম করে আদা খেলে ঘাতক রোগ ক্যান্সার  প্রতিরোধে ভূমিকা রাখে।

আমেরিকান অ্যাসোসিয়েশন ফর ক্যান্সার রিসার্চ’র একটি জার্নালে প্রতিবেদনটি প্রকাশ করা হয়।

অবাক হচ্ছেন, আসুন জেনে নেই আদা খেলে আমাদের শরীরে আরও যে উপকারগুলো পাওয়া যায়: 

•    আদা শরীরের জীবাণু ধ্বংস করে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়
•    যাত্রাপথে বমিভাব কাটাতে আদা খেতে পারেন
•    বুকে জমা কফ বেরিয়ে আসে
•    মুখের ভেতরে জীবাণুকে মেরে ফেলে ও দাঁতের সুস্বাস্থ্য বজায় রাখে
•    সংক্রামণ রোধ করে
•    আদা ক্যান্সারের সেল তৈরি হতে দেয় না। অনেক সময় শরীরে ক্যান্সারের সেল তৈরি হলেও তা ছড়িয়ে যাওয়ার হাত থেকে রক্ষা করে
•    মাইগ্রেনের কারণে মাথাব্যথা হলে আদা পেস্ট করে কপালে লাগাতে পারেন। ধীরে ধীরে ব্যথা কমে যাবে
•    আদার রস রক্তনালীর প্রদাহ কমায়
•    ঠাণ্ডা, কাশি ও ফ্লু-র ওষুধ হিসেবে আদার রস সেই প্রাচীন কার থেকেই ব্যবহার হয়ে আসছে
•    নারীদের মাসিক শুরুর দিকে আদা খেলে পেটের ব্যথা থেকে পরিত্রাণ পাওয়া যায়
•    বুক জ্বালাপোড়া কমাতেও আদা খাওয়া হয়
•    ব্যথা কমায় ও  শরীরের ফোলা কমাতে সাহায্য করে।

LEAVE A REPLY