ইউনিক আইডি কার্ডের জন্য শিক্ষার্থীদের তথ্য পাঠানোর নির্দেশ

0
23

তারা নিউজ ডেস্ক:

প্রাথমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের প্রোফাইল তৈরি করে ইউনিক আইডি কার্ড দেওয়ার জন্য প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং এবতেদায়ি মাদরাসার শিক্ষার্থীদের তথ্য চেয়েছে সরকার।

এই আইডি কার্ড দিয়ে শিক্ষার্থীদের পরবর্তীতে সুযোগ-সুবিধাসহ একাডেমিক তথ্য নিরূপণ করা হবে বলে জানিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।

মঙ্গলবার (০২ মার্চ) ইউনিক আইডি কার্ডের জন্য প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের চিঠিতে উপজেলাভিত্তিক তথ্য সংযুক্ত করে জরুরি ভিত্তিতে পাঠানোর জন্য নির্দেশ দিয়েছে।

চিঠিতে বলা হয়েছে, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের আওতায় বাস্তবায়নাধীন প্রাথমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের প্রোফাইল প্রণয়ন প্রকল্পের মাধ্যমে প্রাথমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের প্রোফাইল তৈরি করা হবে এবং ইউনিক আইডি কার্ড প্রদান করা হবে। ইউনিক আইডি কার্ড প্রস্তুতের জন্য প্রাথমিক পর্যায়ের সরকারি/বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ছাড়াও সরকারি/বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সাথে সংযুক্ত প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এবং ইবতেদায়ি মাদরাসার শিক্ষার্থীদের তথ্য প্রয়োজন।

বিভাগ, জেলা, উপজেলা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানের মোবাইল নম্বর, প্রতিষ্ঠানের নাম, প্রতিষ্ঠানের পরিচিতি নং, মোট ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যার তথ্য চাওয়া হয়েছে।

এই প্রকল্প পরিচালক মো. মনজুর আলম প্রধান স্বাক্ষরিত চিঠি সব জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে পাঠানো হয়েছে।

করোনা ভাইরাস পরিস্থিতির কারণে পরীক্ষা না নেওয়ায় মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষার্থীদেরকে নতুন শিক্ষাবর্ষে রোল নাম্বারের পরিবর্তে আইডি নম্বর দেওয়ার নির্দেশনা দিয়েছে সরকার।

জানুয়ারিতে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর সকল অঞ্চলের পরিচালক, উপপরিচালক, জেলা শিক্ষা অফিসার, সকল সরকারি-বেসরকারি স্কুল-কলেজের অধ্যক্ষ এবং উপজেলা/থানা শিক্ষা অফিসারকে এ ব্যবস্থা নিতে নির্দেশনা দিয়েছে। প্রতিযোগিতার মনোভাব থেকে বেরিয়ে সহযোগিতার মানসিকতা তৈরির জন্য আইডি নম্বর দেওয়া হবে।

নির্দেশনায় শিক্ষার্থীদের দৈবচয়ন পদ্ধতিতে এবং শিক্ষার্থীর নামের বানানের ক্রমানুসারে (অ্যালফাবেট অর্ডার) আইডি দেওয়া যায় বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

গত বছরের ২৯ ডিসেম্বর শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি সংবাদ সম্মেলনে জানান, রোল নম্বর নিয়ে একটা সমস্যা হয়। প্রত্যেক শ্রেণিতে যে রোল নম্বর থাকে, আমাদের রোল নম্বরের যে প্রথা রয়েছে তার কারণে একটা অনভিপ্রেত প্রতিযোগিতা হয় এবং শিক্ষার্থীদের মধ্যে অনেক সময় যে সহযোগিতার মনোভাব যেটি থাকার দরকার অনেক সময় সেটির অভাব ঘটে রোল নম্বরের কারণে, সামনে আসতে চায় সবাই।

তিনি বলেন, আমরা চেষ্টা করছি ২০২১ শিক্ষাবর্ষে শিক্ষার্থীদের শ্রেণির রোল নম্বরের এই বিষয়ের পরিবর্তে আইডি নম্বর দিতে, এতে পুরনো রোল নম্বর প্রথার বিলুপ্তি হবে এবং অনভিপ্রেত প্রতিযোগিতা বন্ধ হয়ে শিক্ষার্থীদের মধ্যে একটা সৎ প্রতিযোগিতার মনোভাব তৈরি হবে বলে আশা করছি।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, প্রাথমিক থেকে সব শিক্ষার্থীর ইউনিক আইডি দেওয়া হবে। পুরো শিক্ষা জীবনে সে ওই আইডি নম্বর নিয়ে থাকবে, এতে তাকে ট্র্যাক করা যাবে সে ঝরে পড়ছে কি না। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে সমতা আনা এবং গুণগত শিক্ষা আনতে আমরা কাজ করছি।

LEAVE A REPLY