দলীয় নেতাদের সঙ্গে দেখা করার অনুমতি পেলেন ফারুক-ওমর

0
6

তারা নিউজ ডেস্ক:

কাশ্মীর রাজ্যকে বিশেষ মর্যাদা দেওয়া ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিলের আগের রাতেই গৃহবন্দি করা হয়েছিল রাজ্যের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ফারুক আব্দুল্লাহ ও তার ছেলে ওমর আব্দুল্লাহকে। গৃহবন্দি থাকার দুইমাস পর কাশ্মীরের ন্যাশনাল কনফারেন্স দলের এই দুই নেতার সঙ্গে দলের অন্যান্য নেতাদের দেখা করার অনুমতি দিয়েছে কাশ্মীর প্রশাসন।

রোববার (৬ অক্টোবর) দেশটির কর্তৃপক্ষের বরাতে এমন তথ্যই জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম।

সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়, ন্যাশনাল কনফারেন্সের মুখপাত্র মদন মান্তু জানান, দলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি দেবেন্দ্র সিং রানার নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল রোববার সকালে জম্মু থেকে তাদের সঙ্গে দেখা করার উদ্দেশে রওয়ানা দেবে।

গত ৫ আগস্ট কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদায় সংবিধানে রাখা ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলের ঘোষণা দেয় নরেন্দ্র মোদীর বিজেপি সরকার। এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের আগে নাটকীয় কায়দায় অঞ্চলটিজুড়ে সামরিক ও আধা-সামরিক বাহিনীর বিপুলসংখ্যক সদস্য মোতায়েন করা হয়।

ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিলের আগের রাতেই (৪ আগস্ট) কাশ্মীরের সাবেক দুই মুখ্যমন্ত্রী ফারুক আব্দুল্লাহ ও ওমর আব্দুল্লাহকে গৃহবন্দি করে রাখা হয়। জনগণের বিক্ষোভ প্রতিরোধের জন্য ডেমোক্রেটিক পার্টির প্রধান নেতা সাবেক মুখ্যমন্ত্রী মাহবুবা মুফতি, জম্মু-কাশ্মীর পিপলস কনফারেন্সের প্রধান সাজ্জাদ লোনসহ কাশ্মীরের গুরুত্বপূর্ণ রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বদের বিরুদ্ধেও একই ব্যবস্থা নেওয়া হয়।

কাশ্মীর সরকারের উপদেষ্টা ফারুক খান শুক্রবার (৪ অক্টোবর) স্থানীয় সংবাদমাধ্যমকে বলেন, কাশ্মীরের এসব নেতাদের আটকে রাখার কারণেই এখনো পর্যন্ত কাশ্মীরের পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। তাদের আটকের কারণ একদম স্পষ্ট। অতীতে এরকম পদক্ষেপ না নেওয়ায় বহুবার কাশ্মীরে ‘রক্তাক্ত’ পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল। ওই নেতাদের আটকে রাখার কারণেই এবার সেই রকম পরিস্থিতি তৈরি হয়নি।

LEAVE A REPLY