ভাগ্যক্রমে বেঁচে গেলেন আফরোজা বেগম, থেঁতলে গেলো পা

0
15

তারা নিউজ ডেস্ক:

রাজধানীর বনানীতে বাসচাপায় বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশনের এক নারী কর্মকর্তার ডান পা হাঁটুর নিচ থেকে পুরোটাই থেঁতলে গেছে। ওই নারী কর্মকর্তার নাম আফরোজা বেগম।

বলতে গেলে ভাগ্যক্রমে বেঁচে গেছেন তিনি।

শুক্রবার (০৪ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১২টার দিকে বনানীর সৈনিক ক্লাব মোড়ে বাস থেকে নামতেই তাকে চাপা দেয় ওই বাস।

ঘটনাস্থলে থাকা পথচারীরা পুলিশকে খবর দেওয়ার পর আফরোজা বেগমকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য স্বজনরা তাকে পঙ্গু হাসপাতালে নিয়ে যান।

আফরোজা বেগমের ছেলে আল আমিন এসব তথ্য জানান।

তিনি জানান, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) নিউক্লিয়ার মেডিসিন বিভাগের টেকনিক্যাল অফিসার হিসেবে চাকরি করে তার মা।  শুক্রবার তাদের বাড়ি  নরসিংদীর পলাশ  উপজেলা থেকে একটি বাসে করে রাজধানীতে ক্যান্টনমেন্ট কচুক্ষেতে বাসায় ফিরছিলেন তিনি।

তিনি আরও জানান, পঙ্গু হাসপাতালের চিকিৎসকরা বলেছে, তার মায়ের থেঁতলে যাওয়া পা-টি সম্ভবত রাখা সম্ভব হবে না।

পঙ্গু হাসপাতালের পরিচালক অধ্যাপক ডা. আব্দুল গনি মোল্লা বলেন, ওই নারীর হাত এবং পা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তবে পায়ের অবস্থা খারাপ। পা-টি যেন ফেলতে না হয় সে চেষ্টা করবো।

বনানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুরে আলম মিয়া বলেন, বনানী সৈনিক ক্লাবের পশ্চিম পাশের রাস্তায় যে গাড়ি থেকে ওই নারী নামছিলেন সেই গাড়িতেই চাপা পড়ে তিনি গুরুতর আহত হয়েছেন। তার ডান পা ও ডান হাতে আঘাত লেগেছে। তবে পা বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ঘটনার পরপরই বাসটি জব্দ করা হলেও চালক পালিয়ে যায়।

LEAVE A REPLY