রাস্তা নয় যেন নদী, চরম দুর্ভোগে মির্জাপুরবাসী

0
31

মো. রুহুল আমীন, মির্জাপুর প্রতিনিধি:

হঠাৎ যে কেউ এ ছবি দেখলে ধন্দে পড়ে যাবে—এটা রাস্তা না নদী! কিন্তু আসলে তা নয়। বৃষ্টির পানিতে সড়ক ডুবে তৈরি হয়েছে এই নদী। এটা মির্জাপুর পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের হাসপাতাল রোড এবং উপজেলার দক্ষিণাঞ্ঝলের মানুষদের উপজেলা সদরে প্রবেশের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ রাস্তা।

গত কয়েকদিনের বৃষ্টিতে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হওয়ায় যান চলাচলসহ পথচারীদের স্বাভাবিক হাঁটাচলা মারাত্মকভাবে ব্যাহত হচ্ছে। পানি নিষ্কাশনের কোনও ব্যবস্থা না থাকায় রাস্তাটি বর্তমানে বেহাল অবস্থায় রয়েছে। কাঁদা আর নোংরা পানিতে এটি তলিয়ে যাওয়ায় পথচারীদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। বিশেষকরে হাসপাতালটিতে জরুরি রোগী আনা নেয়ার ক্ষেত্রে নানা দুর্ভোগের সৃষ্টি হচ্ছে। রাস্তার বিভিন্ন অংশে গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এতে প্রায়ই ঘটছে দুর্ঘটনা।

সারেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, রাস্তাটির দু’পাশে কোন ড্রেনেজ সিস্টেম নেই। এছাড়াও সম্প্রতি রাস্তার পাশের বিশাল একটি বিশাল পুকুর কুমুদিনী হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ভরাট করা হয়েছে। যেকারণে পানি কোনও দিকে সরতে পারছে না।  ফলে সামান্য বৃষ্টিতেই রাস্তাটি তলিয়ে যায়।

সদরের বাইমহাটি গ্রামের বাসিন্দা পারভেজ মোল্লা জানান, গত এক সপ্তাহ ধরে রাস্তাটিতে পানি জমে আছে। বাজারে যেতে হলে কাঁদা ও নোংরা পানি মারিয়েই যেতে হচ্ছে। দেখলে মনে হবে এটা একটা নদী। অথচ দু’পাশে ড্রেনেজ সিস্টেম থাকরে এই সমস্যা হতো না। বিষয়টি দেখার জন্যও কেউ নেই।

এ বিষয়ে ২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর লাবন মিয়া জানান, রাস্তাটি কুমুদিনী কর্তৃপক্ষের নিজস্ব রাস্তা। তারা এটি সংস্কার না করলে আমাদের কিছু করার নেই।

এ ব্যাপারে কুমুদিনী হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের একজন ঊর্ধতন কর্মকর্তার সাথে যোগাযোগ করলে তিনি এ বিষয়ে কথা বলতে অপারগতা প্রকাশ করেন।

LEAVE A REPLY