সচেতনতার অভাবে ঝুঁকিপূর্ণ সড়ক পারাপার

0
44

তারা নিউজ ডেস্ক:

সড়ক দুর্ঘটনায় প্রায় প্রতিদিনই ঘটছে প্রাণহানির ঘটনা, পঙ্গু হচ্ছেন অসংখ্য মানুষ। রাজধানীতেও এর সংখ্যা কম নয়। এ থেকে বাঁচতে ইতোমধ্যে তৈরি হয়েছে অসংখ্য ফুটওভার ব্রিজ, সড়ক বিভাজক, জেব্রা ক্রসিং। তারপরও বন্ধ হয়নি দুর্ঘটনা। সচেতনতার অভাবে এখনো ঝুঁকি নিয়েই সড়ক পার হচ্ছেন পথচারীরা। জেব্রা ক্রসিংয়ের নিয়ম মানছেন না পরিবহন চালকেরাও। এ বিষয়ে আইন থাকলেও তার যথাযথ প্রয়োগ দেখাতে পারছে না ট্রাফিক বিভাগ।

বুধবার (৪ সেপ্টেম্বর) সরেজমিনে রাজধানীর বিভিন্ন সড়ক ঘুরে এ ধরনের অনেক দৃশ্য দেখা গেছে।

ট্রাফিক পুলিশের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, জেব্রা ক্রসিং তৈরি হয়েছে মানুষের যাতায়াতের সুবিধার্থে। নিয়ম হচ্ছে- ট্রাফিক পুলিশ সঙ্কেত দিলে যানবাহনগুলো জেব্রা ক্রসিংয়ের আগে সাদা দাগের কাছে থেমে যাবে ও জেব্রা ক্রসিং দিয়ে পথচারীরা পার হবেন। আবার সঙ্কেত দিলে যানবাহন চলাচল করবে, পথচারীরা সড়কের দু’পাশে থেমে যাবেন। কিন্তু, বাস্তবচিত্র পুরোটাই ভিন্ন। জেব্রা ক্রসিং দিয়ে একই সঙ্গে চলছে যানবাহন চলাচল ও পথচারী পারাপার।

ডেমরা জোনের ট্রাফিক ইন্সপেক্টর বিপ্লব ভৌমিক বাংলানিউজকে বলেন, জেব্রা ক্রসিংয়ের ওপর যানবাহন দাঁড়ালে ১৪০ ধারা অমান্য করায় পাঁচশ টাকা জরিমানার বিধান রয়েছে। তবে, পথচারীরা নিয়ম না মানলে জরিমানার ব্যবস্থা নেই।তিনি বলেন, ঢাকা শহরের ৭০ শতাংশ দুর্ঘটনা ঘটে যাত্রীদের সচেতনতার অভাবেই। যানবাহন চলাকালে দৌঁড়ে রাস্তা পার হন অনেকে। এর কারণে ঘটে দুর্ঘটনা। পথচারীরা নিয়ম না মানলে জরিমানার বিধান না থাকায় আমরা তাদের পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণ করতে পারি না।

তবে, পরিবহন চালকদের জরিমানার বিধান থাকলেও হরহামেশাই এ আদেশ অমান্য করেন তারা। এ বিষয়ে দায়িত্বরত ট্রাফিক পুলিশদেরও দেখা যায় নির্বিকার ভূমিকায়।সম্প্রতি পথচারীদের নিরাপত্তায় রাজধানীর বিভিন্ন পয়েন্টে জেব্রা ক্রসিং দেওয়া হলেও তা ব্যবহারের ক্ষেত্রে চালক ও পথচারীদের উদাসীনতা লক্ষ্যণীয়।

রামপুরা থেকে কুড়িল বিশ্বরোড পর্যন্ত বেশ কয়েকটি জেব্রা ক্রসিং থাকলেও মানুষ ঝুঁকি নিয়েই যত্রতত্র সড়ক পার হচ্ছে, একই সময় দ্রুত গতিতে চলছে বাসসহ অন্য পরিবহনগুলো।ক্লান্ত পথচারী, বৃদ্ধ, শিশু, নারী, প্রতিবন্ধী, রোগী ও মালামাল বহনকারীদের পক্ষে ফুটওভার ব্রিজ দিয়ে পার হওয়া কঠিন। তাদের সুবিধার জন্যই জেব্রা ক্রসিং তৈরি হলেও তা ব্যবহার করেন না অধিকাংশ পথচারী। আবার, অনেকে জানলেও সময় বাঁচাতে নিয়মের তোয়াক্কা না করেই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ইচ্ছামতো সড়ক পার হন।

সড়ক দুর্ঘটনা রোধে পরিবহন চালক, পথচারীসহ সবার সচেতন হওয়ার বিকল্প নেই বলে মত বিশ্লেষকদের। পাশাপাশি, আইনের যথাযথ প্রয়োগও বাড়ানো দরকার বলে মনে করেন তারা।

LEAVE A REPLY