সবুজ বিশ্বের জন্য লড়ছে নয় বছরের ভ্যালেন্টিনা

0
32

তারা নিউজ ডেস্ক:

মাত্র নয় বছর বয়সের ভ্যালেন্টিনার অন্য বন্ধুরা যখন পুতুল খেলছে, সে তখন ব্যস্ত প্রকৃতিকে সবুজে সবুজে ভরে দিতে।

ভারতের মণিপুরের মুখ্যমন্ত্রীর উদ্যোগ গ্রিন মণিপুর মিশনের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে নিয়োগ পেয়েছে ছোট্ট এই শিশু। দেশটির সংবাদ মাধ্যম থেকে জানা যায়, মণিপুর রাজ্যের বনসম্পদ ধ্বংস ও ভূমিক্ষয়ের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলার কাজ করবে গ্রিন মণিপুর মিশন।

শিশুটিকে এত বড় এই দায়িত্ব দেওয়ার পেছনে একটি গল্প রয়েছে, বেশ কয়েক বছর আগে ভ্যালেন্টিনার বাবা বাড়িতে ১৫টি কৃষ্ণচূড়া গাছের চারা নিয়ে এসেছিলেন। বাবা মেয়ে মিলে গাছগুলো লাগান। তবে নদীর প্রবল জোয়ারে সে সব গাছের বেশিরভাগই বাঁচানো সম্ভব হয়নি। মাত্র দু’টি গাছ বেঁচেছিল। রাস্তা সম্প্রসারণের জন্য সেই গাছ দু’টিও কাটা পড়ে। এটা মেনে নিতে পারেনি ছোট্ট ভ্যালেন্টিনা। সে তীব্র প্রতিবাদ করে যেন গাছগুলো না কাটা হয়। চিৎকার করে বলতে থাকে, গাছগুলোর সে যত্ন নেয়, পরিষ্কার রাখে এগুলো সে কাটতে দেবে না। এই প্রতিবাদের মূহুর্তটি ভিডিও করে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে আপ করেন ভ্যালেন্টিনার চাচা মোনেন।

আর এই গাছ কাটার বিরুদ্ধে তার ভিডিও ভাইরাল হয়ে যায়। এটা চোখে পড়ে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী এন বীরেন সিংহের। এরপরই তিনি সিদ্ধান্ত নেন গ্রিন মণিপুর মিশনের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর হিসেবে ভ্যালেন্টিনাকে দায়িত্ব দেওয়ার। রাজ্যের বৃক্ষরোপণের বিভিন্ন কর্মসূচিতে ও বিশ্ব পরিবেশ দিবস, বনমহোৎসবের মতো দিনগুলোতেও দেখা যাবে ভ্যালেন্টিনাকে। মণিপুর রাজ্যে সবুজায়নের লক্ষ্যে যে সব বিজ্ঞাপন প্রচার করা হবে, সেখানেও অংশ নেবে ভ্যালেন্টিনা।

নতুন দায়িত্ব পেয়ে খুশি ভ্যালেন্টিনাও। সে চায় প্রত্যেকে যেন জীবনে অন্তত ২০টি করে গাছ লাগায়। প্রকৃতির বন্ধু ছোট্ট ভ্যালেন্টিনার প্রিয় গাছ কৃষ্ণচূড়া আর প্রিয় ফুল পদ্ম।

LEAVE A REPLY